সর্বশেষ সংবাদ ::

বগুড়ায় বাস ও প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে নিহত ৪

বগুড়া সংবাদ : বগুড়ায় বাসের সঙ্গে প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে মোটরশ্রমিক ইউনিয়নের এক নেতাসহ চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুজন। আজ শনিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে জেলা সদরের এরুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে বগুড়া-নওগাঁ আঞ্চলিক মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।নিহতরা হলেন বগুড়া মোটরশ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বগুড়া শহর শ্রমিক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক ফাইন হোসেন মণ্ডল (৫৫), চারমাথা বাস টার্মিনালের চেইন মাস্টার আব্দুল হান্নান (৪৪), আলমগীর হোসেন (৪২) ও অজ্ঞাত যুবক (২৫)।বগুড়া সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহিম এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।’ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীনরা হলেন রমিছা বেগম (৪০) ও রবিউল ইসলাম (৬০)।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নওগাঁগামী প্রাইভেটকার একটি মালবাহী ট্রাককে অতিক্রম করার সময় নওগাঁ থেকে বগুড়াগামী বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে প্রাইভেটকারের বিভিন্ন অংশ কেটে তিনজনের মরদেহ এবং গুরুতর আহত অবস্থায় অপর তিনজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় আজ বেলা পৌনে ২টার দিকে অজ্ঞাত এক যুবক মারা গেছেন। দুর্ঘটনার কারণে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে সড়কে ঘটনাস্থলের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি সরিয়ে নিলে দুপুর সাড়ে ১২টায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। পুলিশ জানায়, বগুড়া সদর থানা-পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও প্রাইভেটকার হেফাজতে নিয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বগুড়া মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হামিদ মিটুল বলেন, ‘নিহত তিনজনই বগুড়া মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা-কর্মী। বাসের চালক ও সহকারীকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে।’

Check Also

শাজাহানপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে মারপিটে নারী আহত \ গ্রেপ্তার ১

বগুড়া সংবাদ :   বগুড়ার শাজাহানপুরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের মারপিটে রাজিয়া সুলতানা (৫৫) …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *