সর্বশেষ সংবাদ ::

(সৌন্দর্য্যরে মাঝে অসৌন্দর্য্য) সান্তাহার পৌরসভার আল্লাহর ৯৯ নাম সম্বলিত ও চার মুক্তিযোদ্ধার নামের ভাস্কর্য

বগুড়া সংবাদ : বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌরসভার উদ্যোগে পৌর শহরের রেলগেট এলাকায় আল্লাহর ৯৯ নাম সম্বলিত একটি ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়েছে। যা পৌর শহরের চিত্রই পাল্টে দিয়েছে। এমন একটি নান্দনিক সৌন্দর্য্যে মধ্যেও দেখা দিয়েছে সৌন্দর্য্য।

সান্তাহার পৌর শহরের রেলগেট এলাকার গোলচত্বরে সৌন্দর্য্যে বাড়িয়েছে আল্লাহর ৯৯ নাম সম্বলিত ও চার জন মুক্তিযোদ্ধার নামে করা ভাস্কর্যটি। এমন একটি ভাস্কর্য তৈরি করার মাধ্যমে সান্তাহার পৌরসভার নান্দনিক সৌন্দর্য্যে আরও একটি পালক যুক্ত হয়েছে। এমন দৃষ্টিনন্দন স্থাপনার ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছে সান্তাহার পৌরসভা ও পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু। তবে এমন দৃষ্টিনন্দন সুন্দর্য্যরে মাঝে বাধাঁ হয়ে দাড়িয়েছে বিভিন্ন ডিস ও ইনটারনেটের ক্যাবলের তার। এ যেন সৌন্দর্য্যরে মাঝেও অসৌন্দর্য্য।
সান্তাহার পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, গত ২০২৩ সালে শহরের সৌন্দর্য্য  বর্ধন ও দখলের হাত থেকে বাঁচাতে রেলগেট এলাকায় আট লক্ষ টাকা ব্যায়ে আল্লাহর ৯৯ নাম সম্বলিত ও চার মুক্তিযোদ্ধার নামের একটি ভাস্কর্য তৈরি করা হয়। গত বছর ১৬ ডিসেম্বর এই ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করা হয়েছে। রাতের বেলা এই ভাস্কর্যটি আকর্ষনীয় করে তুলতে বিভিন্ন আলোকসজ্জা করা হয়েছে। তবে এই ভাস্কর্যটির উপর দিয়ে অপরিকল্পিত ভাবে বিভিন্ন ইন্টারনেট ও ডিস ক্যাবলের তার থাকায় এই সৌন্দর্য্যটি প্রতিফলিত হচ্ছে না।
নেহাল আহম্মেদ নামের এক স্থানীয় ব্যাক্তি বলেন, সান্তাহার রেলগেট এলাকায় যে স্থাপনাটি নিমার্ণ করা হয়েছে এই স্থাপনার মধ্য দিয়ে সান্তাহারে প্রবেশের সৌন্দর্য্য আর বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এই স্থাপনা ঘেঁষে নানা ধরনের ক্যাবল ও তার থাকার কারণে এর আসল সৌন্দর্য্য প্রকাশ পাচ্ছে না।
এস এম রাজু নামের এক যুবক বলেন, আমাদের শহরকে সুন্দর করে সাজিয়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে পৌর মেয়র। তার ধারাবাহিকতায় পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র রেলগেট এলাকায় একটি ভাষ্কর্য নিমাণ করা হয়েছে। এই ভাষ্কর্যটির আশেপাশে অনেক অপরিকল্পিত তার থাকায় ভাষ্কর্যটি মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে না। যতদ্রæত সম্ভব এই তারগুলো অপসরণ করতে হবে।
বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ সান্তাহার নেসকো লিঃ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ওমর ফারুক বলেন, ডিস বা ইন্টারনেট তার আমাদের মধ্যে পড়ে না তাদের তার আমরা অপসরন করতে পারবো না। এ বিষয়ে পৌরসভা বা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কমিউনিকেশন ব্যবস্থা নিতে পারবে।
এ বিষয়ে সান্তাহার পৌরসভা মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু বলেন, পৌরসভার নিজস্ব অর্থায়নে চার বীর শহীদ  মুক্তিযোদ্ধার নামে স্মৃতিস্তম্ব ও আল্লাহর ৯৯ টি নামের ইসলামী ভাস্কর্যটি তৈরি করা হযেছে। কিন্তু ডিস ও  ইন্টারনেট তারের কারনে সৌন্দর্য্য বর্ধন নষ্ট হচ্ছে। আগামী সাত দিনের মধ্যে সব ব্যবসায়ীদের নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নেওয়া জন্য বলা হয়েছে। যদি নিজ উদ্যোগে সরিয়ে না নেয় তাহলে পৌরসভার থেকে সকল তার অপসারণ করা হবে।

Check Also

গাবতলীতে ৩দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন করলেন প্রধান অতিথি এমপি নান্নু

বগুড়া সংবাদ : বুধবার বগুড়ার গাবতলীতে ৩দিন ব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *